ব্রেকিং নিউজঃ যশোর বোর্ডের এসএসসি বাংলা ২য় পত্রের এমসিকিউ পরীক্ষা স্থগিত - BESTTIPS24

ব্রেকিং নিউজঃ যশোর বোর্ডের এসএসসি বাংলা ২য় পত্রের এমসিকিউ পরীক্ষা স্থগিত

যশোর বোর্ডের এসএসসি বাংলা ২য় পত্রের এমসিকিউ পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে। তবে অনুষ্ঠিত হবে সৃজনশীল অংশের পরীক্ষা।
শুধু যশোর বোর্ডের অধীনে থাকা যশোর, খুলনা, সাতক্ষীরা, বাগেরহাট, চুয়াডাঙ্গা, মেহেরপুর, নড়াইল, ঝিনাইদহ ও মাগুরা জেলার পরীক্ষার্থীদের বাংলা দ্বিতীয় পত্রের এমসিকিউ পরীক্ষা হবে না। তবে এসব জেলা পরীক্ষার্থীদের বাংলা দ্বিতীয় পত্রের সৃজনশীল বা রচনামূলক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

এসব জেলার পরীক্ষার্থীদের যথারীতি সকাল সাড়ে ১০টায় কেন্দ্রে প্রবেশ করতে হবে। আর বেলা ১১ টা থেকে ১২টা ৪০ মিনিট পর্যন্ত তাদের বাংলা দ্বিতীয়পত্রের রচনামূলক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

শুক্রবার বিষয়টি জানিয়ে আদেশ জারি করেছে যশোর মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড।
আদেশটি যশোর, খুলনা, সাতক্ষীরা, বাগেরহাট, চুয়াডাঙ্গা, মেহেরপুর, নড়াইল, ঝিনাইদহ ও মাগুরার জেলা প্রশাসকদের পাঠানো হয়েছে।

জানা গেছে, নড়াইলে এসএসসি পরীক্ষার প্রথমদিনে কয়েকটি কেন্দ্রে বাংলা প্রথম পত্রের পরিবর্তে দ্বিতীয় পত্রের এমসিকিউ প্রশ্নপত্র দেওয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার কালিয়া প্যারী শংকর পাইলট মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয় ও বাঐসোনা কামশিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয় এবং লোহাগড়া উপজেলার দিঘলিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে।

কালিয়া প্যারী শংকর পাইলট মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ে ১০০ পরীক্ষার্থীর মধ্যে বাংলা প্রথম পত্রের পরিবর্তে দ্বিতীয় পত্রের প্রশ্নপত্র সরবরাহ করার পর বিষয়টি পরীক্ষার্থী ও কক্ষ পরিদর্শকদের নজরে আসে। এছাড়া বাঐসোনা কামশিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ১৫টি প্রশ্নপত্র সরবরাহের পর বিষয়টি নজরে আসলে কেন্দ্র সংশ্লিষ্টরা প্রশ্ন দেওয়া বন্ধ করে দেন।

এদিকে লোহাগড়া উপজেলার দিঘলিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে প্রশ্ন সরবরাহের আগেই বিষয়টি নজরে আসে বলে সংশ্লিষ্টদের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে।

এ বিষয়ে বাঐসোনা কামশিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক অমলেন্দু হিরা জানান, ১৫টি প্রশ্ন সরবরাহের পর বিষয়টি নজরে আসলে কেন্দ্র সংশ্লিষ্টরা প্রশ্ন দেয়া বন্ধ করে দেন। পরে তা গুছিয়ে নেয়া হয়।

দিঘলিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের কেন্দ্র সচিব সুভাষ চন্দ্র কুণ্ডু বলেন, আমাদের এখানে সরবরাহকৃত একটি প্যাকেটে প্রথম পত্রের পরিবর্তে দ্বিতীয় পত্রের এমসিকিউ প্রশ্ন ছিল। এ প্যাকেটে ১০০ প্রশ্নপত্র ছিল। পরীক্ষার্থীদের হাতে দেওয়ার আগেই বিষয়টি আমাদের নজের আসে।

এ ব্যাপারে কালিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরিফুল ইসলাম বলেন, কালিয়ায় সরবরাহকৃত প্যাকেটের ওপরে বাংলা প্রথম পত্র লেখা থাকলেও ভেতরে দ্বিতীয় পত্রের এমসিকিউ প্রশ্ন পাওয়া গেছে। কক্ষ পরিদর্শকেরা এ প্রশ্ন বিতরণ করলেও তাৎক্ষণিকভাবে সবার কাছ থেকে তা গুছিয়ে নেয়া হয়েছে।

জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা এম ছাইয়েদুর রহমান বলেন, এটা বিজিপ্রেস থেকে যখন প্যাকেট করে তখন ভুলভাবে চলে এসেছে, আমরা টের পাওয়ার পরে তা তুলে নিয়ে বাংলা প্রথমপত্রের অতিরিক্ত সেট থেকে পরীক্ষা নিয়েছি, পরীক্ষায় কোনো সমস্যা হয়নি। যে সেট ওপেন হয়েছে তা ফাঁস হয়ে যাওয়ায় ঐ সেটে দ্বিতীয় পত্র পরীক্ষা হবে না।

Leave a Comment